গোটা বিশ্বে এখনও ৯০টি করোনার ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চলছে

Mysepik Webdesk: বিশ্বে করোনার রোগীদের সংখ্যা ১১.৫৭ কোটি ছাড়িয়েছে। ৯ কোটি ১৪ লক্ষ মানুষ সুস্থ হয়েছেন। এখন পর্যন্ত ২৫ লক্ষ ৭০ হাজারেরও বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। এই পরিসংখ্যানগুলি www.worldometers.info/coronavirus অনুসারে। আমেরিকার পর ব্রাজিলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। সেখানে প্রতিদিন প্রায় ৭০ থেকে ৮০ হাজার আক্রান্তদের শনাক্ত করা হচ্ছে। অন্যদিকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখন প্রতিদিন গড়ে ৬০ থেকে ৮০ হাজার মানুষের সংক্রমিত হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। যদিও জানুয়ারি পর্যন্ত এই সংখ্যা ১ লাখের বেশি ছিল। মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন বলেছেন যে, মে মাসের মধ্যে দেশে এত ভ্যাকসিন থাকবে যে, প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ককে টিকা দেওয়া যেতে পারবে।

আরও পড়ুন: উত্তাল মায়ানমারে আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশের গুলি, ১৮ গণতন্ত্রপন্থীর মৃত্যু

স্পেনে প্রাণ হারানো মানুষের সংখ্যা ৭০ হাজার ছাড়িয়েছে। এখনও পর্যন্ত এখানে ৭০ হাজার ২৪৭ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। করোনায় মৃত্যু তালিকায় স্পেন রয়েছে ১০ম স্থানে। অন্যদিকে, ফ্রান্সে আবারও গতি অর্জন করেছে করোনা। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৬ হাজার ৭৮৮ নতুন রোগী এখানে শনাক্ত করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত বিশ্বে জরুরিভাবে ব্যবহারের জন্য ১২টি ভ্যাকসিন অনুমোদিত হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ভারত বায়োটেকের কোভাকসিন এবং সিরাম ইন্সটিটিউটের কোভিশিল্ড। এ ছাড়াও ৯০টি ভ্যাকসিন রয়েছে, যার পরীক্ষা চলছে। ২৮টি ভ্যাকসিন পর্যায়-১, ৪০টি পর্যায়-২ এবং ৩টি ভ্যাকসিন রয়েছে যা পর্যায়-৩’এ রয়েছে। এখনও অবধি সারাবিশ্বে ২৬.৮৬ কোটিরও বেশি মানুষকে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: ইউহানের ল্যাব থেকেই ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস, গবেষণাপত্র প্রকাশ জার্মান বিজ্ঞানীর

রাষ্ট্রসংঘ সাহায্য হিসাবে কোভাক্সের ১ কোটি ডোজ আফ্রিকাকে পাঠিয়েছে। রাষ্ট্রসংঘ বলেছে যে, দরিদ্র দেশগুলিকে সাহায্য করতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে, তবেই এই রোগ নির্মূল করা সম্ভব। একইসঙ্গে, কানাডা সরকার ৫ লাখ ডোজ সাহায্যের জন্য ভারত সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছে। কানাডা সরকার জানিয়েছিল যে, তারা ভারত থেকে করোনার ভ্যাকসিনের ৫ লক্ষ ডোজ পেয়েছে।

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *