এবার ১০০% সফল ‘সুপার ভ্যাকসিন’ তৈরির দাবি চিনের

Corona virus vaccine

Mysepik Webdesk: বিশ্বজুড়ে করোনা ভ্যাকসিন তৈরিতে ব্যস্ত গবেষকরা। তবে এরই মধ্যে চিন দাবি করেছে যে তারা করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ১০০% সফল ‘সুপার ভ্যাকসিন’ তৈরি করেছে। বেজিংয়ের দাবি, এই টিকা ১০ লক্ষ মানুষকে দেওয়া হয়েছে, তাদের মধ্যে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। সেই সঙ্গে চিনের দাবি যে, এই টিকা দেওয়ার পর তাঁদের মধ্যে কেউ করোনাভাইরাস সংক্রমিত হননি। এই কারণে তারা এই ভ্যাকসিনকে ‘সুপার ভ্যাকসিন’ বলছে।

আরও পড়ুন: কাবুলে সিরিজ রকেট হামলা, নিহত ৮

সবার আগে করোনার ভ্যাকসিন আনার সম্ভাবনা চীনের | The Business Standard

চিন সরকার এই ভ্যাকসিনকে ‘সুপার ভ্যাকসিন’ বলেও সিনোফার্ম-এর তৈরি এই কোভিড ভ্যাকসিন কিন্তু এখনও ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের চূড়ান্ত পর্ব সম্পূর্ণ করেনি। তা সত্ত্বেও করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক হিসেবে এই সুপার ভ্যাকসিন সাধারণের উপর প্রয়োগের অনুমোদন দিয়েছে চিন সরকার।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্তদের রেমডেসিভির দিতে মানা করল হু

ট্রায়াল শেষের আগেই হাজার হাজার মানুষকে গোপনে করোনার টিকা দেওয়া শুরু করল  চিন!

চিনা সংস্থা সিনোফার্ম-এর লিউ জিংজেন জানিয়েছেন, তাদের তৈরি এই সুপার ভ্যাকসিন প্রয়োগের ফলে বড় রকমের কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা না দিলেও ছোটখাট কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে যা সহজেই সারানো সম্ভব। তাঁর দাবি, বিদেশে সংস্থার এক দফতরে কর্মরত ৯৯ জন কর্মীর মধ্যে ৮১ জনকে এই টিকা দেওয়া হয়। এরপর সেই অফিসে করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রকোপ দেখা দিলে, যাঁরা টিকা নিয়েছিলেন তাঁরা জীবাণুর দ্বারা সংক্রমিত হননি। কিন্তু টিকা না নেওয়া ১৮ জন কর্মীর মধ্যে ১০ জন কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন।

জানা গিয়েছে, সিনোফার্ম-এর তৈরি সুপার ভ্যাক্সিন বর্তমানে ট্রায়ালের তৃতীয় তথা অন্তিম পর্যায়ে রয়েছে। বিশ্বের ১০টি দেশের ৬০,০০০ স্বেচ্ছাসেবীর উপরে এই পরীক্ষা করা হচ্ছে।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *