রাজ্যে এবার টিকার শংসাপত্রে থাকবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি

Mysepik Webdesk: এতদিন পর্যন্ত কো-উইন পোর্টাল থেকে ভ্যাকসিন নেওয়া হয়ে গেলে যে শংসাপত্র দেওয়া হতো, সেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ছবি থাকত। এবার রাজ্যের তখ্য থেকে পৃথক শংসাপত্র দেওয়া হবে। সেই শংসাপত্রে থাকবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি। ছবির পাশাপাশি বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় বার্তা থাকবে। সেক্ষেত্রে বাংলায় লেখা থাকবে, ‘সজাগ থাকুন, নিরাপদে থাকুন’ আর ইংরেজিতে লেখা থাকবে, ‘বি অ্যালার্ট, বি সেফ’। কিন্তু কীভাবে পাওয়া যাবে এই শংসাপত্র।

আরও পড়ুন: উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা বাড়িতে বসেই! শুক্রবার বিশেষজ্ঞ কমিটির রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, তৃতীয় পর্যায়ে অর্থাৎ ১৮-৪৪ বছর বয়সীদের যাঁদের টিকা দেওয়া সম্পূর্ণ হবে, তাঁদের ক্ষেত্রে এই শংসাপত্র দেওয়া হবে। টিকা নেওয়ার পর তাঁদের ফোনে স্বাস্থ্য দফতর থেকে একটি মেসেজ যাবে। ওই মেসেজে একটি লিঙ্ক থাকবে। সেই লিংক ক্লিক করেই রাজ্যের শংসাপত্র ডাউনলোড করা যাবে। তবে, কেন্দ্র ও রাজ্যের শংসাপত্রের মধ্যে কিছুটা পার্থক্য থাকছে। কেন্দ্রের শংসাপত্রে যিনি টিকা নিয়েছেন, তাঁকে একটি ‘ইউনিক’ নম্বর দেওয়া হয়, যা রাজ্যের শংসাপত্রে থাকছে না। তাছাড়া টিকার দ্বিতীয় ডোজ কবে দেওয়া হবে, তাও রাজ্যের শংসাপত্রে থাকছে না। কিন্তু সেই তারিখ আবার কেন্দ্রের শংসাপত্রে থাকে।

আরও পড়ুন: সিনেমার গানে নায়িকার মুখের জায়গায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ বসিয়ে কুরুচিকর পোস্ট, অভিযোগ লালবাজারে

অন্যদিকে রাজ্যের শংসাপত্রের ক্ষেত্রে টিকাগ্রহীতার নাম, ঠিকানা, বয়স, লিঙ্গ, পরিচয়পত্রের বিররণ, টিকার প্রথম ডোজের তারিখ, টিকাকরণের স্থান লেখা থাকবে। এছাড়াও ওই শংসাপত্রে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবিও থাকবে। কিন্তু হটাৎ মুখ্যমন্ত্রীর ছবি কেন? সংশ্লিষ্ট মহলের বক্তব্য, ১৮-৪৪ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার জন্য প্রায় ১৫০ কোটির টাকা খরচ করে টিকার ডোজ কিনেছে রাজ্য। সেই কারণেই শংসাপত্রে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি দিলে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *