এবার ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু শিশুদের শরীরেও

vaccine tryal

Mysepik Webdesk: অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা স্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন ভারতে কোভিশিল্ড নামে পরিচিত। এবার এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু হতে চলেছে শিশুদের শরীরে। ইতিমধ্যেই অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির ভ্যাকসিন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের শরীরে প্রয়োগ করার পর দারুন সাফল্য পেয়েছে। এইবার পালা শিশুদের। বিজ্ঞানীরা এই প্রথমবার তাঁদের তৈরি ভ্যাকসিন শুধুমাত্র শিশুদের শরীরে ট্রায়াল দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে চলেছে। সেই কারণেই ৬ থেকে ১৭ বছরের শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের এই কাজের ভলেন্টিয়ার হিসেবে নিয়োগ করার জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে।

আরও পড়ুন: করোনা কেড়ে নিল দুটি সাদা বাঘের বাচ্চার জীবন

Image result for oxford vaccine tryal

অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসে প্রকাশিত একটি রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে, শনিবারই এই ভ্যাকসিন শিশুদের ওপর ট্রায়ালের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রায় ৩০০ জনের নাম ভলেন্টিয়ার হিসেবে রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে। তাদের পরিবারের লিখিত অনুমতির ভিত্তিতেই তাদের নাম ভলেন্টিয়ার হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, এই মুহূর্তে বিশ্বে শুধুমাত্র চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী এবং ফ্রন্টলাইন কর্মীদেরই এই টিকা প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়াও কয়েকটি দেশে বয়স্কদের এই টিকা দেওয়ার কাজ চলছে।

আরও পড়ুন: সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে চিঠি মায়ানমারে ৩০০ এমপির

Image result for oxford vaccine tryal

জেনে রাখা ভালো, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অক্সফোর্ডের এই ভ্যাকসিনকেই একমাত্র বড় স্তরে ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে। সংস্থা জানিয়েছে, বিশ্বে যে কয়টি ভ্যাকসিন তৈরি হয়েছে তাদের সবকটির মধ্যে অক্সফোর্ডের এই ভ্যাকসিনটি একমাত্র সুরক্ষিত এবং এটিকে নিশ্চিন্তে মানবশরীরে প্রয়োগ করা যেতে পারে। প্রথম ডোজ প্রয়োগ করার পর ৮ থেকে ১০ সপ্তাহ গ্যাপ দিয়ে দ্বিতীয় ডোজ প্রয়োগ করতে হবে। এর ফলে মানব শরীর ধীরে ধীরে করোনাভাইরাসের অ্যান্টিবডি তৈরি হবে, যা করোনা সংক্রমণকে রুখে দেবে। তবে বিশেষজ্ঞদের সন্দেহ, ইদানিং লন্ডনে করোনাভাইরাসের যে নতুন স্ট্রেনের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে, এই ভ্যাকসিন সেই ভাইরাস প্রতিরোধে আদৌ কার্যকরী কিনা, সেই বিষয়ে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *