বাংলাদেশে দূর্গামূর্তি ভাঙার মতো অপরাধের সঙ্গে জড়িতদের কঠোর শাস্তি হবে: শেখ হাসিনা

Mysepik Webdesk: ধর্ম আলাদা হতে পারে, কিন্তু উৎসব সবার, প্রত্যেক ধর্মের মানুষদেরই বাংলাদেশে নিজ নিজ ধর্ম পালন করার অধিকার আছে। কিছু দুষ্টচক্র বাংলাদেশের এই নীতিকে নষ্ট করার চক্রান্ত করে চলেছে। তবে, বাংলাদেশ সরকার এর কঠোর ব্যবস্থা নেবে। তদন্তে কেউ দোষী প্রমাণিত হলে তাকে কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে, সম্প্রতি বাংলাদেশে দুর্গামূর্তি ভাঙার ঘটনাকে কেন্দ্র করে যে উত্তেজনা ছড়িয়েছে, সেই বিষয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আরও পড়ুন: বৈশ্বিক ক্ষুধার তালিকায় পাকিস্তান, বাংলাদেশ, নেপালের চেয়ে পিছিয়ে ভারত

শনিবার একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি জানান, “দুর্গামূর্তি ভাঙার ঘটনা ও সেই ঘটনাকে ঘিরে যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে, তা নিয়ে বাংলাদেশ সরকার তদন্ত শুরু করেছে। যারা এই ধরণের ঘটনা ঘটিয়েছে, তাদের চিহ্নিত করা হচ্ছে। দোষী প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করা হবে।” অন্যদিকে এই ঘটনাকে ঘিরে উদ্বিগ্ন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি। তিনি জানান, “বাংলাদেশে ধর্মীয় জমায়েতের উপর হামলা হওয়ার বেশ কয়েকটি খবর আমি শুনেছি। বাংলাদেশ সরকার এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে। দুর্গাপুজো বাংলাদেশেও অনুষ্ঠিত হয়। ভারতীয় হাই-কমিশন বাংলাদেশের সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রেখে চলেছে।

আরও পড়ুন: রাশিয়ায় বিমান দুর্ঘটনায় মৃত অন্তত ১৬ জন

এদিকে বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি এলাকায় দুর্গামূর্তি ভাঙার ঘটনায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি দাবি করেছেন, দেশের প্রধানমন্ত্রী ও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অবিলম্বে মিলিতভাবে এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করুক। প্রসঙ্গত, দুর্গামূর্তি ভাঙার ঘটনায় সৃষ্টি হওয়া উত্তেজনা প্রশমিত করতে বাংলাদেশে ২২ টি জেলায় আধা সেনা মোতায়েন করেছে বাংলাদেশ সরকার।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *