চিনের সঙ্গে বন্ধুত্বের জের, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখালেন হাজার হাজার মানুষ

nilam jhilam barriaje

Mysepik Webdesk: ভারতের সঙ্গে শত্রুতার মধ্যেই চিনের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে উঠেছে পাকিস্তানের। এই পরিপ্রেক্ষিতে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে নীলম ঝিলম নদীতে বাঁধ দেওয়া নিয়ে চিনের একটি সংস্থার সঙ্গে চুক্তি হয়েছে পাকিস্তানের। সেইমতো নীলম ঝিলম নদীতে বাঁধ দেওয়ার কাজ শুরু হতেই এলাকার বাসিন্দারা শুরু করে দিয়েছে বিক্ষোভ সমাবেশ। হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে প্রতিবাদে অংশ নিয়েছেন। এই প্রোজেক্টের বিরোধিতা করে মুজফরাবাদ শহরে একটি মশাল র‍্যালিও বার করে প্রতিবাদীরা। তাদের স্লোগান, ‘দরিয়া বাঁচাও, মুজফরাবাদ বাঁচাও’,‘নীলম ঝিলম কো বেহনে দো, হামে জিন্দা রেহনে দো’।

আরও পড়ুন: অক্টোবরেই আসছে করোনার ভ্যাকসিন, ইঙ্গিত দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প

জানা গিয়েছে, পাক অধিকৃত কাশ্মীর ছাড়াও আরও বহু জায়গা থেকে মানুষ ওই র‍্যালিতে অংশ গ্রহণ করেছেন। ১.৫৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের ৭০০.৭ মেগা ওয়াটের আজাদ পট্টন হাইডল পাওয়ার প্রোজেক্টে চিনের জিয়োঞ্জা গ্রুপ অফ কোম্পানি কাজ করছে। ঝিলম নদী থেকে ৭ কিমি আর ইসলামাবাদ থেকে ৯০ কিমি দূরে এই বাঁধের কাজ হচ্ছে। চিনের থ্রি গোরজেস কর্পোরেশন, ইন্টারন্যাশানাল ফাইন্যান্স কর্পোরেশন আর সিল্ক ব্যাঙ্ক ফান্ড এই প্রোজেক্টের সাথে যুক্ত রয়েছে।

আরও পড়ুন: করোনা ছাড়াও অন্য একটি অতিমারী থাবা বসাতে চলেছে বিশ্বে, সাবধান করল WHO

২০২৬ এর মধ্যে এই প্রোজেক্ট সম্পূর্ণ হওয়ার কথা। এদিকে মুজফরাবাদের বসিন্দাদের দাবি, এই প্রোজেক্ট শেষ হওয়ার পর এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাছাড়া চিন-পাকিস্তান যৌথভাবে আর্থিক করিডরের নামে বালোচিস্তান থেকে প্রাকৃতিক ভান্ডার লুটপাট চালাচ্ছে। আর সেই কারণে সেখানকার বাসিন্দা এই প্রোজেক্টের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *