পৃথিবীর আকাশে আজ বিরল মহাজাতিক মিলন দেখার সুযোগ

ড. মাল্যবান চট্টোপাধ্যায়

২০২০ অনেক কিছুই শেখাচ্ছে আমাদের, তেতো গেলার মতো তা গিলে চলেছি আমরাও। একদিকে যেমন করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিশ্ব বিপর্যয়ের মুখে, তেমন আমরা দেখছি দীর্ঘ লকডাউনের কারণে যানবাহন কমে যাবার জন্য ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছে পরিবেশ। আবার এসবের মাঝেও একদল মানুষ গবেষণা করে যাচ্ছেন, আশার আলো দেখাতে। এসবের মাঝেই ২০২০ কিছু মহাজাগতিক ঘটনা দেখার সুযোগও করে দিচ্ছে।

আরও পড়ুন: ট্রান্সজেন্ডার মহিলাদের নিয়ে ব্রিটিশ জার্নালের গবেষণা সবাইকে চমকে দিয়েছে, আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি করতে পারে নিয়ম পরিবর্তন

আজ থেকে ছয় মাস আগে আমরা প্রত্যক্ষ করেছি আর একটি মহাজাগতিক ঘটনা। গত ২১ জুন রবিবার আমরা দেখেছি সূর্যের বলয়গ্রাস গ্রহণ। এর আগে ২০১৯-এর ২৬ ডিসেম্বর শেষ বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ হয়েছিল। বলে রাখা দরকার, এটি পূর্ণগ্রাস বা আংশিক গ্রহণ নয়। রবিবার দেখা গিয়েছিল  সূর্যের বলয়গ্রাস গ্রহণ।

আজও একুশ তারিখ। তবে মাস ডিসেম্বর। আজই ঘটবে বিরল মহাজাগতিক ঘটনা। দু’টি বিশাল গ্রহ, বৃহস্পতি ও শনি মিলে তৈরি করবে বিরল যুগ্মগ্রহ। ১৫ ডিসেম্বর থেকে ২৫ ডিসেম্বর দু’টি গ্রহ খুব কাছাকাছি চলে আসবে এমনটাই কথা ছিল। কিন্তু মাহেন্দ্রক্ষণ আজই ২১  ডিসেম্বর। আজ তাঁরা একদম মিলে গিয়ে যুগ্নগ্রহে পরিণত হবে। শনি, পৃথিবী ও বৃহস্পতির মধ্যে কোণের মান হবে শূন্যের কাছাকাছি (প্রায় ০.১ ডিগ্রি)। এমনিতে ২০ বছর পর পর বৃহস্পতি ও শনির মধ্যে দূরত্ব কমে যায় কিন্তু দু’টি গ্রহের মিলন ঘটে বহু বহু বছর পর পর। তাই এটি আরওই বিরল ঘটনা। এরপর এটি  ঘটবে ২০৮০ সালে, তারপর আবার ২৪০০ সালে। এর আগে ১২২৬ সালের ৪ মার্চ এই ঘটনা ঘটেছিল। অর্থাৎ  ৮০০ বছর পর এই মিলন, যা দেখা যাবে আজ  সন্ধ্যায় (৫.২৮ থেকে ৭.১২) দক্ষিণ-পশ্চিম আকাশে দিগন্তরেখার উপরে। একে স্মরণীয় করতে গুগুল ও প্রকাশ করেছে ডুডুল।

আরও পড়ুন: নাসার এই চন্দ্রযানে চড়েই চাঁদে যাবেন বিশ্বের প্রথম মহিলা মহাকাশচারী

তাই  বাইনোকুলার বা টেলিস্কোপ ব্যবহার করুন আর এই বিরল ঘটনাটি দেখুন এটাই হচ্ছে বিজ্ঞান সংগঠনগুলির আবেদন এবং এভাবেই। আকাশ নিয়ে কৌতূহল মেটান এবং  মহাজাগতিক ঘটনা নিয়ে কুসংস্কার ও অন্ধবিশ্বাসের চোরাস্রোতকে রোধ করুন, না হলে ৮০০ বছর পরে যখন আবার এটি হবে তখন আমরা কেউই দেখার সুযোগ পাব না।

তাই রসিকতা  করে বললে বলাই যায়,

ছয় মাস পরে আরেকবার,
না দেখলে আটশো পার।

লেখক আসানসোল গার্লস কলেজের ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *