সেই ফ্যালফ্যাল করে তাকানোটা রয়েই গেল

শুভ্রাংশু রায়

সেই ছিয়াশির রাত্রি। আর আজ কুড়ির এই রাত্রি। সেদিন বিশ্বজোড়া খবর। আজকেও। বিশ্বের সব খবর, হেডলাইন মুহূর্তে অপ্রাসঙ্গিক হয়ে গেল। ওই যে সেই লোকটা। সাড়ে পাঁচ ফুটের আর্জেন্টিনার শ্রমিক পরিবারের পঞ্চম সন্তান। বিশ্বের ফুটবলের রাজপুত্র। শুধু ফুটবল নয়। বিশ্বের কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ের সম্রাট। দিয়েগো আরমান্দো মারাদোনা।

আরও পড়ুন: বিশ্বকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে মারাদোনা

বিশ্বজোড়া তরঙ্গে হয়তো তরঙ্গের চেয়েও বেশি গতিতে ছড়িয়ে পড়েছে খবরটা। গত কয়েকদিন আগেই ষাট বছর পূর্ণ করা মারাদোনা আর নেই। নিজের জন্মভূমিতে শেষনিশ্বাস ত্যাগ করলেন এই বিশ্বময় মানুষটি। হ্যাঁ গ্লোবাল। বিশ্বময় চরিত্র। নারীর প্রতি ভালোবাসার প্রশ্নে তাঁর আনুগত্যে অনেক প্রশ্ন উঠতেই পারে। কিন্তু স্বদেশ-প্রীতি নিয়ে কেউ প্রশ্ন তুলতেই পারবে না। খেলোয়াড় হিসেবে, ম্যানেজার হিসেবে এমনকী অযাচিতভাবে পরামর্শদাতা হিসেবে নিজের জন্মভূমির জন্য জান লড়িয়ে দিতে পিছপা হতেন না তিনি। সাদা-কালো নয় মারাদোনার জীবন যেন নীল-সাদা ডোরাকাটা জামা। জীবনের দ্বিতীয় প্রেম সেই নাপোলির পতাকা জার্সি রং যে নীল। নাপোলিতে নীল।

অনেক লেখা অনেক স্মৃতিচারণমূলক ভিডিয়ো আমরা পাব। এই বেদনার দিনে শুধু মনে পড়ে ছিয়াশির সেই গভীর রাতের কথা, যেদিন মারাদোনা নিজের সেন্টার সার্কেল থেকে বল নিয়ে প্রায় সোজা ষাট গজের একটি দৌড়ে ইংল্যান্ডের ছয় খেলোয়াড়কে মাটি ধরিয়ে গোল করলেন। সেদিন বাড়ির নতুন কেনা সাদা-কালো টিভির দিকে অবাক বিস্ময়ে তাকিয়ে ছিলাম। ফ্যালফ্যাল করে। বিহ্বলতায় আচ্ছন্ন হয়ে। আজকে যখন এই দুঃসংবাদটি পেলাম, অপার বিস্ময়ে তাকিয়ে ছিলাম। নিজের মোবাইল সেটটির দিকে। ওই ফ্যালফ্যাল করেই। বোকার মতো। দিয়েগো মারাদোনা সবাইকে আবার ফাঁকি দিয়ে বিস্মিত করে বেরিয়ে গেলেন। অমৃতলোকের উদ্দেশ্যে। নিজের প্রিয় নেতা ফিদেল কাস্ত্রোর মৃত্যুদিনেই। শেষে বিশ্বজয়ের পরে সেই বছরের ‘আনন্দমেলা’র পূজাবার্ষিকীতে অন্নদাশঙ্কর রায়ের লেখা কবিতার কয়েকটি লাইন জুড়ে দিলাম সকলের সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার জন্য—

”ধিনতা ধিনা পাকা নোনা
কাপ জিতেছে আর্জেন্টিনা,
দেখছি বসে টিভি খুলে
রাত্রি জেগে নিদ্রা ভুলে,
মেক্সিকোতে যাচ্ছে শোনা
মারাদোনা, মারাদোনা

তা ধিনতা ধিনা ধিনা
বিশ্বজয়ী আর্জেন্টিনা,
ফকল্যান্ডের যুদ্ধে হেরে
ইংল্যান্ডকে দিল মেরে,
শোধবোধ অস্ত্রবিনা
আর্জেন্টিনা আর্জেন্টিনা।”

লেখক সোনারপুর মহাবিদ্যালয়ের ইতিহাসের অ্যাসিসট্যান্ট প্রফেসর

Facebook Twitter Email Whatsapp

5 comments

  • Debashis Majumder

    legend

  • খুব ভালো লাগল তোমার লেখা শুভ্রাংশু…86 June midnight এ TV তে দেখা ছোটবেলার স্মৃতি কখনো ভুলতে পারব না…তারপর থেকেই football world cup এ Argentina কে support করতে শুরু করি…মারাদোনা মানে ম্যাজিক…

  • Malyaban Chattopadhyay

    শ্রদ্ধা

  • শ্রাবন্তী মণ্ডল

    তারাদের দেশে ভালো থাকুন রাজপুত্র

  • Paromita Ghosh

    Apnar lekha dine dine priyo hoye uthche sir…
    Fulball jogot nischoi tar jetar protik kalo ghora ke smoron korbe barbar ….
    Shoshodhro pronaam roilo… Jekhanei theko bhalo theko…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *