ভোকাল কর্ডে টিউমার, শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি মদন মিত্রর

Mysepik Webdesk: কিছুদিন আগে করোনামুক্ত হয়েছেন কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র। নারাদকাণ্ডে সিবিআই গ্রেফতার করার পরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তাঁকে পুলিশি হেফাজতেই ভর্তি করা হয় এসএসকেএম হাসপাতালের উডবার্ন ওয়ার্ডে। বেশ কিছু শারীরিক পরীক্ষাও হয়েছে তাঁর। পরীক্ষা করার পর এসএসকেএমের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তাঁর ভোকাল কর্ডে টিউমার ধরা পড়েছে। তবে ওই টিউমার তাঁর জন্য ঠিক কতটা ক্ষতিকর, সেটা জানার জন্য আরও কয়েকটি পরীক্ষার প্রয়োজন। আপাতত হাসপাতালে চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে চলছেন তিনি।

আরও পড়ুন: ‘দিদি ক্ষমা করুন’, তৃণমূলে ফিরতে চেয়ে মমতাকে খোলা চিঠি সোনালির

প্রসঙ্গত, গত ১৭ মে নারদ মামলায় চার্জশিট পেশ করার দিনেই বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় মদন মিত্রকে। সেখান থেকে সোজা নিজাম প্যালেসে সিবিআই দপ্তরে তাঁকে নিয়ে আসা হয়। প্রিয় নেতার গ্রেফতারিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছিলেন তাঁর অনুরাগীরা। তিনি অভিযোগ করেন, তাঁর স্ত্রী কোয়ারেন্টাইন রয়েছেন জেনেও সিবিআই আধিকারিকরা জোর করে তাঁর বেডরুমে প্রবেশ করে।

আরও পড়ুন: ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মৃত্যু, খাস কলকাতার বুকে

এদিকে সদ্য করোনামুক্ত হওয়ার জন্য তিনি শারীরিকভাবে অনেকটাই দুর্বল ছিলেন। সেই অবস্থাতেই তাঁকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসেন সিবিআই আধিকারিকরা। সিবিআই হেফাজতে থাকাকালীন অসুস্থ হয়ে পড়েন মদনবাবু। তাঁকে এসএসকে এম হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তিনি ছাড়াও অসুস্থতার কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়। শুধুমাত্র সিবিআই হেফাজতে ছিলেন ফিরহাদ হাকিম। তবে হাইকোর্টের রায়ে অভিযুক্তদের প্রত্যেককে ঘরবন্দি রাখার নির্দেশ দেওয়া হলেও শুধুমাত্র বাড়ি ফিরেছেন ফিরহাদ হাকিম। কিন্তু বাকি তিন অভিযুক্ত শারীরিক অসুস্থতার কারণে হাসপাতালেই থেকে যান।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *