কখনও অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে না পারায় আক্ষেপ দু’বারের অলিম্পিয়ান তিরন্দাজ দীপিকা কুমারীর

Mysepik Webdesk: কোভিড-১৯ মহামারির কারণে বাতিল হয়েছে বেশ কয়েকটি প্রস্তাবিত তিরন্দাজি টুর্নামেন্ট। এর ফলে পরের বছর অলিম্পিকে ভারতীয় মহিলা তিরন্দাজদের পক্ষে কোটা অর্জন করা কঠিন চ্যালেঞ্জ হবে। এমনটাই মনে করেন কমনওয়েলথ গেমসের স্বর্ণপদক প্রাপ্ত বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় তারকা দীপিকা কুমারী। টোকিও অলিম্পিকে খেলার যোগ্যতা অর্জনের জন্য ভারতীয়দের কাছে মাত্র একটি টুর্নামেন্ট বাকি রয়েছে, সেখানে মাত্র দু’টি জায়গা রয়েছে।

আরও পড়ুন: হকি, শ্যুটিং সহ ২০টি স্পোর্টস ফেডারেশন এক বছরের জন্য স্বীকৃতি পাবে, এই মেয়াদে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন

ভারতীয় টেবিল টেনিস খেলোয়াড় মুদিত দানির অনলাইন চ্যাট শো ‘দ্য স্পটলাইট’এ দীপিকা বলেছেন, “কোভিড-১৯’এর ফলে লকডাউনের আগে দেশের মহিলা তিরন্দাজরা কঠোর পরিশ্রম করেছেন। তাঁরা নিজেদের কোটা সুরক্ষিত রাখার ব্যাপারে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী ছিলেন। যখন লকডাউন হয়, সেই সময়ের এক মাসের মধ্যে আমরা যোগ্যতা অর্জন পর্বে অংশ নিতে যাচ্ছিলাম। আমাদের অনুশীলনও ভালো চলছিল। কিন্তু লকডাউনের পর আমরা কী করব, তা জানতাম না।”

আরও পড়ুন: ব্যাডমিন্টন: ওয়ার্ল্ড ট্যুর ফাইনালসে সরাসরি প্রবেশ করতে পারবেন না সিন্ধু

দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দীপিকা আরও বলেন, এই মুহূর্তে মহিলা বিভাগে আমাদের কেবল একটি কোটাই রয়েছে। অন্য দু’টি কোটার স্থান সুরক্ষিত করার জন্য কেবল একটিমাত্র বাছাই প্রক্রিয়া বাকি রয়েছে। সাধারণত এই সময়ের অধ্যায় আমরা পূর্ণ কোটা অর্জন করতে পারতাম, কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ অন্যরকম।” উল্লেখ্য যে, গতবছরের জুনে বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপের জন্য দলীয় কোটা অর্জন করতে ব্যর্থ হওয়ার পরে ভারতীয় মহিলা তিরন্দাজ দল প্যারিসে পূর্ণ কোটা অর্জনের জন্য একটি চূড়ান্ত সুযোগ পাবে।

দীপিকা কুমারী একমাত্র ভারতীয় মহিলা ধনুর্বিদ, যিনি টোকিও অলিম্পিকে কোয়ালিফাই করেছেন। গতবছর ব্যাংককে এশিয়ান কন্টিনেন্টাল কোয়ালিফিকেশন টুর্নামেন্টে স্বর্ণপদক জিতে তিনি এই যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন। দীপিকা উল্লেখ করেন যে, দু’বারের অলিম্পিয়ান হয়েও তিনি কখনও অলিম্পিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেননি। তিনি বলেন, “তিরন্দাজিতে আমাদের র‍্যাঙ্কিং উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের দিন থেকেই শুরু হয়। এইজন্যই আমার দুঃখ যে, আমি কখনোই কোনও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারিনি এবং তা আমি টিভিতে দেখি সাধ মিটিয়েছি।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *