আকাঙ্ক্ষা শর্মা খুনের ঘটনায় উদয়ন দাসকে যাবজ্জীবন সাজা

Mysepik Webdesk: মধ্যপ্রদেশের ভোপালে আকাঙ্ক্ষা শর্মা খুনের ঘটনায় মঙ্গলবার বাঁকুড়া আদালত উদয়ন দাসকে দোষী সাব্যস্ত করে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করল। বাঁকুড়ার ফাস্ট ট্র‌্যাক কোর্টের বিচারক সুরেশ বিশ্বকর্মা এই রায় দিয়েছেন। সাজা শোনার পরেও আগের মতোই নির্বিকার ছিলেন ওই খুনের ঘটনার আসামি উদয়ন দাস। আদালতের বাইরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, “এতে আমার ‌আমার কোনও অনুশোচনা নেই। প্রয়োজনে আমরা হাইকোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টেও যাব।”

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ

২০১৬ সালে আকাঙ্ক্ষা খুনের ঘটনায় তোলপাড় হয়ে যায় গোটা দেশ। ওই বছরই ২৭ ডিসেম্বর রাতে দু’জনের মধ্যে বচসার পর আকাঙ্ক্ষাকে গলা টিপে খুন করে একটি টিনের বাক্সে তাঁর দেহ ঢুকিয়ে রেখে শোয়ার ঘরে সেই টিনের বাক্সের ওপর কংক্রিটের গাঁথনি তুলে মার্বেল দিয়ে ঢেকে দেয়। এই ঘটনার পরই আকাঙ্ক্ষার খুঁজে বাঁকুড়া পুলিশ পৌঁছে যায় ভোপালের গোবিন্দপুরা থানার সাকেতনগরে উদয়নের বাড়িতে। তদন্তে নেমে পুলিশ উদয়নকে গ্রেফতার করে। ২ ফেব্রুয়ারি আকাঙ্ক্ষার দেহ উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন: লাদাখ সীমান্তে আকাশপথে বাড়ছে চিনা হেলিকপ্টারের আনাগোনা, মোতায়েন এয়ার ডিফেন্স মিসাইল

এর আগে বাবা বীরেন্দ্রকুমার দাস ও মা ইন্দ্রাণী দাসকে খুন করে ছত্তিশগড়ের রায়পুরের বাড়ির বাগানে পুঁতে দিয়েছিল উদয়ন। আকাঙ্খাকে খুনের ঘটনায় পুলিশি জেরায় সে কথা নিজেই জানায় সে। ২০১৭ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি উদয়নের বাবা মার কঙ্কাল উদ্ধার করে পুলিশ।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *