‘V’: করোনার কারণে ডিজিটাল রিলিজ না হলে ভিক্ট্রি অবশ্যই পেতেন পরিচালক

ডাঃ অরিন্দম পাত্র

চারিদিকে তেলগু থ্রিলার ‘V’-এর বেশ সুখ্যাতি। তাই লোভে পড়ে দেখতেই হল। দেখতে গিয়ে যেটা অনুভব করলাম, ফিল্মটি আসলে commercial action entertainer। একে দক্ষিণের আর পাঁচটা নন-কমার্শিয়াল থ্রিলারের সঙ্গে গুলিয়ে ফেললে চলবে না। এখানেও সাইকো সিরিয়াল কিলার আছে। যদিও সেখানে ভিলেন কম, হিরো বেশি। অরণ্যদেব আর ব্যাটম্যানের মতো ক্ষিপ্রতা তার। আর হাইলি স্টাইলিশ। এখানেও রয়েছে এক পুলিশ অফিসার কিন্তু সে আদতে সুপার-কপ। দুর্ধর্ষ তার অ্যাকশন। সালমান খানের মতো ‘জামা খুলে’ একা হাতে ১০ জন গুন্ডার মহড়া নিতে সে সুদক্ষ! আর হ্যাঁ, এখানেও এক মহিলা ক্রিমিনাল সাইকোলজিস্ট আছে। কিন্তু তার মূল কাজ হিরোর সঙ্গে প্রেম করা। মাঝেমধ্যে নাচগান করা। তাই ‘আঞ্জাম পাথিরা’ বা ‘রাতসসান’ দেখার মাইন্ডসেট নিয়ে এই ছবি দেখলে চলবে না। মাইন্ডসেট পাল্টে ফেলে মশালা মোড অন করে দেখতে হবে এই ফিল্ম।

আরও পড়ুন: ‘মাই ক্লায়েন্ট’স ওয়াইফ’ যেন ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের নেল বাইটিং ফিনিশের মতো

Nani's V Gets Biggest OTT Deal Of His Career?

ছবির গল্প আমাদের সেই চিরচেনা প্রেডিক্টেবল গল্প। রিভেঞ্জ ড্রামা। অন্যায়ের শিকার হয়ে এক হিরোর ভিলেন হয়ে গিয়ে একের পর এক খুন করে সামাজিক জঞ্জাল সাফাইয়ে উদ্যত হওয়া। আর ন্যায়ের প্রতিভূ এক পুলিশ অফিসারের তাকে রোখার চেষ্টা। তবে শেষে কী হল, সেটা ছবিতেই দেখে নেওয়া ভালো। আমি আর কথা বাড়াব না। শেষের দিকে চিত্রনাট্য একটু অতিরিক্ত প্রসারিত লেগেছে। হায়দরাবাদ, মুম্বই, ভাইজ্যাগ, কাশ্মীর ঘুরে থাইল্যান্ডে গল্প যখন পৌঁছে যায় তখন একটু একটু বিরক্তই লাগছিল অস্বীকার করব না। অভিনয়ে অ্যান্টাগোনিস্ট বিষ্ণুর ভূমিকায় ন্যানির কাজ প্রশংসনীয়। ভালো আর খারাপ দু’রকম শেডসেই প্রশংসাযোগ্য কাজ করেছেন নবীন বাবু ওরফে ন্যানি। সুধীর বাবু অর্থাৎ সুপার কপ ডিসিপি আদিত্য চিত্রনাট্যে ন্যানির সমান সমান জায়গা পেয়েছেন। তবে অতটা উজ্জ্বল দেখায়নি ওনাকে। নায়িকা অপূর্বার ভূমিকায় নিবেতা থমাসের কিছু করার ছিল না। বরঞ্চ ছোট্ট রোলে স্বল্প পরিসরে নজর কেড়েছেন বলিউডের অদিতি রাও হায়দারি। সিনেমাটোগ্রাফির কাজ বিশেষত কাশ্মীর ও থাইল্যান্ড অংশের বেশ ভালো। অমিত ত্রিবেদি সুরারোপিত কোনও গান ছবি দেখার পরে আর মনে থাকে না। বিজিএম অ্যাভারেজ।

Nani And Sudheer Babu's V Movie Teaser Stills - Social News XYZ

সবমিলিয়ে যাঁরা দুই নায়ক সংবলিত ‘ওয়ার’-এর মতো অ্যাকশন ড্রামা দেখতে পছন্দ করেন, তাঁদের মন্দ লাগবে না ‘V’। আসলে পরিচালক মোহন কৃষ্ণ ইন্দ্রগতি এখানে ‘V’ for Vishnu-র বদলে ‘V’ for Victory দেখাতে চেয়েছিলেন। বক্স অফিস ভিক্ট্রি! করোনার কারণে ডিজিটাল রিলিজ না হলে তা তিনি অবশ্যই পেতেন হয়তো। আর ঠিক তাই শেষে সিকুয়েলের আশাও জাগিয়ে রেখেছেন তিনি।

prasanth (prasanthkumarchelamarla) on Pinterest

● আমার রেটিং: ৬/১০..a one time watch..

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *