Latest News

Popular Posts

এক গ্লাস জলই যথেষ্ট আপনার পেটের মেদ কমাতে!

এক গ্লাস জলই যথেষ্ট আপনার পেটের মেদ কমাতে!

রাত্রে ঘুমাতে যাওয়ার আগে আপনি কী কিছু পান করেন? দুধ অথবা জল, তাই তো? অনেকেই রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এক গ্লাস দুধ পান করে থাকেন। কেননা গরম দুধ স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। আপনি কি আপনার পেটের বাড়তি মেদ কি ভাবে কমাবেন তা নিয়ে চিন্তা করছেন? মেদ কমানোর জন্য করছেন ব্যায়াম অথবা ডায়েট? তবে কষ্টের দিন শেষ, এখন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পান করুন শুধু এই পানীয়টি আর কমিয়ে ফেলুন পেটের মেদ! এই পানীয় পেটের মেদ কমানোর পাশাপাশি উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। চলুন জেনে নিয় কিভাবে বানাবেন এই পানীয় আর কি কি লাগবে এই পানীয় বানাতে।


যেগুলো লাগবে এই পানীয় বানাতে :
শসা ১টি, ধনেপাতা এক মুঠো, লেবু ১ টি, আদা কুচি ১টেবিল চামচ, অ্যালোভেরা জুস ১ টেবিল চামচ আর ১/২ গ্লাস জল।


যেভাবে তৈরি করবেন:
১. প্রথমে শসা, ধনেপাতা ও আদা কুচি এক সাথে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন।


২. এবার তারমধ্যে অ্যালোভেরা জেল, লেবুর রস ও জল দিয়ে আবার ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন। পানীয়টি যেন খুব বেশি পাতলা না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।


৩. প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এক গ্লাসকরে এই পানীয় পান করুন।


৪. পানীয়টি ফ্রিজে রেখে সংরক্ষণ করতে পারেন।


যেভাবে কাজ করে এই পানীয়:
১. পেটের মেদ কমাতে শসা খুব কার্যকরী। কারণ শসায় ক্যালরির পরিমাণ খুব কম, জলের পরিমাণ বেশি থাকে।


২. ধনেপাতায় প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন এবং মিনারেল রয়েছে। যা শরীরের জলের প্রবাহ সচল রাখে এবং পেট ফাঁপা রোধ করে।


৩. লেবু শরীরের টক্সিক পদার্থ দূর করে এবং মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে দেয়।


৪. আদা মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। এছাড়াও আদাতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান দীর্ঘক্ষণ পেট ভরে রাখে এবং পেটের বাড়তি মেদ কাটাতে সাহায্য করে।


৫. অ্যালোভেরা জুস পেটের মেদ কমাতে অনেক বেশি কার্যকরী। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান শরীরে অভ্যন্তরীণ রেডিক্যাল তৈরিতে বাঁধা প্রদান করে।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *