রাজ্যের বাকি চার কেন্দ্রে উপনির্বাচনে ফলাফল কী হতে পারে, জানালেন দিলীপ ঘোষ

Mysepik Webdesk: ভবানীপুরে তৃণমূলের বন্যায় কার্যত খড়কুটোর মতো ভেসে গিয়েছে বিজেপি। রেকর্ড ভোটে পরাজিত হয়েছে গেরুয়া শিবির। আগামী ৩০ অক্টোবর রাজ্যের আরও চার কেন্দ্রে উপনির্বাচন। দিনহাটা, খড়দহ, গোসাবা এবং শান্তিপুর কেন্দ্রে ঐদিন হবে উপনির্বাচন। ওই কেন্দ্রগুলিতে কী ফের ভবানীপুর, সামশেরগঞ্জ কিংবা জঙ্গিপুরের মতোই তৃণমূলের জয়জয়কার হবে? নাকি রাজ্যের শাসকদলকে টক্কর দিতে পারবে গেরুয়া শিবির। এবার সেই বিষয়েই মুখ খুললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

আরও পড়ুন: ভয়ঙ্কর অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা কলুটোলা স্ট্রিটে, ঘটনাস্থলে ২২টি দমকলের ইঞ্জিন

সোমবার সংবাদমাধ্যমের সামনে ভবানীপুর সম্পর্কে তিনি জানান, “ভবানীপুরে আমাদের সংগঠনের দুর্বলতা রয়েছে সেটা আমি মানছি। কারণ, ভোটের আগে গুন্ডা লেলিয়ে দিয়ে বিরোধীদের প্রচার করতে দেওয়া হয়নি। রীতিমত ভয় দেখানো হয়েছে, অনেকে ভোটাররা ভয়েই বের হননি ভোট দিতে। আগামী ৩০ অক্টোবর ওই চার কেন্দ্রে ভোটের ফলাফলে বিজেপি কী তৃণমূলকে টক্কর দিতে পারবে? এই প্রশ্নে দিলীপ ঘোষ জানান, “আগামী চারটে উপনির্বাচনে আমাদের সঙ্গে ভালো ফাইট হবে। কারণ, ওখানে আমাদের সংগঠন মজবুত রয়েছে। তবে ভবানীপুরে যে রেজাল্ট আশা করা হয়েছিল, তাই হয়েছে। লিড একটু বেশি হয়েছে। আমরা আশা করেছিলাম, আরেকটু কম হবে। কিন্তু, লোকে ভয়ে বেরোয়নি ভোট দিতে। বিরোধী ভোটার ছিল তাঁরা। সেই জন্যই লিডটা বেশি হয়েছে। তবে আমরাও তার সামনে সমানে টক্কর দিয়ে প্রচার করেছি। কারণ আমরা বিরোধী দল হয়ে লড়াই করছি।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *