একবার করোনা হয়ে যাওয়ার পরেও কী ভ্যাকসিন নেওয়া প্রয়োজন, কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

Mysepik Webdesk: বেশ কয়েকদিন ধরেই ইতিমধ্যেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। ভারতেও আগামী জানুয়ারি মাসে টিকা দেওয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যদপ্তর। ইতিমধ্যেই জোরকদমে তার প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে। স্বাস্থ্যদপ্তরের নির্দেশ অনুযায়ী, প্রথমে স্বাস্থ্যকর্মী, বয়স্ক, অসুস্থ ব্যক্তিরা প্রাধান্য পাবেন এই টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে। এরপর আরও কয়েকধাপে সাধারণ মানুষকে টিকা দেওয়া হবে। এই পরিস্থিতিতে অনেকের মনেই প্রশ্ন আসতে পারে, যদি আগে কারোর কোভিড হয়ে থাকে এবং সুস্থ হয়ে ওঠে, তাহলেও কী টিকা নিতে হবে? এই ধরনের প্রাসঙ্গিক কিছু প্রশ্ন নিয়ে সম্প্রতি দ্য নিউইয়র্ক টাইমস অনলাইন ভার্সনে অপূর্ভা ম্যান্ডাভিলি দুটি নিবন্ধ লিখেছেন। তিনি ভাইরোলজিস্ট ও বিশেষজ্ঞদের বক্তব্যের উদ্ধৃতি দিয়ে বিষয়গুলো ব্যখ্যা করেছেন।

আরও পড়ুন: একটি মাস্ক একাধিকবার ব্যবহারের করেন? তাহলে এখন থেকেই সাবধান হয়ে যান

Russia aiming for coronavirus vaccine tests in June

বর্তমানে বিভিন্ন পত্রিকা থেকে আমরা জেনেছি যে একবার আক্রান্ত হয়ে কোভিডমুক্ত হলে শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়। এই অবস্থায় অনেকেই জানতে আগ্রহী হয় যে বয়স যাই হোক, বেশি বা কম, টিকা নেওয়া কতটা জরুরি। টিকা নেওয়া কী আদৌ দরকার? এই বিষয়ে কারও কারও মতে একবার কোভিডে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হওয়ার পর যেহেতু তার রোগ প্রতিরোধী ক্ষমতা সৃষ্টি হয়ে যায়, তাই তাদের ক্ষেত্রে আর টিকা গ্রহণ করার প্রয়োজন নেই। কিন্তু অধিকাংশ বিশেষজ্ঞ মনে করেন, সবারই টিকা নেওয়া প্রয়োজন।

আরও পড়ুন: শীতে প্রতিদিন একটি করে আমলকি খান আর দেখুন ম্যাজিক

Muslims worried whether Corona vaccines are halal as it may contain pork  products | Corona Vaccine हलाल है या हराम? मुस्लिम धर्मगुरुओं के बीच छिड़ी  बहस | Hindi News, देश

বিশেষজ্ঞদের মতে আক্রান্ত ব্যক্তি কী মাত্রায় আক্রান্ত হয়েছিলেন এবং তারপর কত দ্রুত সুস্থ হয়েছেন, সেই অনুযায়ী তার দেহে প্রতিরোধী ক্ষমতা কার্যকর হয়। হারভার্ড টি এইচ চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথের এপিডেমিওলজিস্ট বিল হ্যানেজ এই বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন। তিনি বলেন, কোনও ব্যক্তির করোনাভাইরাস যদি হালকা ধরনের হয় এবং দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন, তাহলে তার দেহে সৃষ্ট প্রতিরোধী ক্ষমতা সাধারণত বেশি দিন সক্রিয় থাকে না। এ অবস্থায় তার টিকা নেওয়া দরকার। সুতরাং, সাধারণভাবে বলা যায়, সবার জন্যই টিকা প্রযোজ্য।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *