বাংলা থেকে অক্সিজেন অন্য রাজ্যে যাচ্ছে কেন, মোদিকে প্রশ্ন মমতার

Mysepik Webdesk: করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে দেশজুড়ে। এই পরিস্থিতিতে দেশজুড়ে দেখা দিয়েছে অক্সিজেনের আকাল। হাসপাতালে বেডের অভাবে রোগী ভর্তি নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। একই অবস্থা পশ্চিমবঙ্গেও। দেশের এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকার পশ্চিমবঙ্গ থেকে উৎপাদিত অক্সিজেন উত্তরপ্রদেশ পাঠানোর কথা বলেছিলেন, যার বিরোধিতা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একটি চিঠি লিখে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করেন, বাংলায় তৈরি অক্সিজেন কেন ভিন রাজ্যে নিয়ে যাওয়া হবে।

আরও পড়ুন: কথা রাখলেন মমতা, ক্ষমতায় এসেই শীতলকুচিতে গঠন করলেন সিট!

চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, করোনা পরিস্থিতি দেশে মারাত্মক আকার নিচ্ছে। প্রতিদিন অক্সিজেনের চাহিদা বাড়ছে। রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় অক্সিজেনের চাহিদা ছিল ৪৭০ মেট্রিক টন। অথচ রাজ্য এখন প্রতিদিন গড়ে অক্সিজেন পাচ্ছে ৩০৮ মেট্রিক টন। আগামী দিনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হচ্ছে। আগামী ৭-৮ দিনে ৫৫০ মেট্রিন টন অক্সিজেন দরকার পড়বে।” চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী আরও উল্লেখ করেন, “রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠকে অক্সিজেনের দৈনিক বরাদ্দ বৃদ্ধি করে ৫৫০ মেট্রিক টন করার কথা বলেছিলেন। কিন্তু বাংলার জন্য বরাদ্দ না বাড়িয়ে অন্য রাজ্যকে বেশি করে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। আর সেটাও দেওয়া হচ্ছে বাংলায় উৎপাদিত অক্সিজেন থেকেই।”

আরও পড়ুন: ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তে রাজ্যে ৪ সদস্যের কেন্দ্রীয় দল

ওই চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী আরও উল্লেখ করেন, শুধুমাত্র গত ১০ দিনে বাংলা থেকে অন্য রাজ্যে নিয়ে যাওয়া অক্সিজেনের পরিমান ২৩০ মেট্রিক টন থেকে বেড়ে হয়েছে ২৬০ মেট্রিক টন। অথচ বাংলার জন্য বরাদ্দ রয়েছে মাত্র ৩০৮ মেট্রিক টন। এদিকে বাংলার প্রতিদিন অক্সিজেনের প্রয়োজন পড়ছে ৫৫০ মেট্রিক টন।” আগামী দিনে রাজ্যে অক্সিজেনের অভাব ঘটতে পারে, এমনটা আশঙ্কা করে ওই চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, “অবিলম্বে কেন্দ্রীয় সরকার এই রাজ্যে অক্সিজেনের ঘাটতি না মেটালে বহু রোগী মৃত্যুর আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে। তাই এ বিষয়ে অবিলম্বে প্রধানমন্ত্রীকে ব্যবস্থা নিতে হবে।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *