ঈদ উপলক্ষে কেন তিনদিন লকডাউন শিথিল, কেরল সরকারকে ভৎসনা সুপ্রিম কোর্টের

Mysepik Webdesk: মানুষের জীবন আগে, শুধুমাত্র ব্যবসায়ীদের দাবি পূরণ করতে গিয়ে লকডাউন শিথিল করার সিদ্ধান্ত দুঃখজনক। মঙ্গলবার বকরি ঈদ উপলক্ষে কেরলে তিনদিনের জন্য লকডাউন শিথিল করার সিদ্ধান্তে মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট কেরল সরকারকে তীব্র ভৎসনা করল। পাশাপাশি করোনা সংক্রমণ বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছে ভারতের সর্বোচ্চ আদালত। যদিও ব্যবসায়ীদের চাপে পড়ে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে বলেও নিজেদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে খণ্ডন করতে চেয়েছে বাম শাসিত কেরল সরকার।

আরও পড়ুন: কৃষক আন্দোলন এবার সংসদের সামনে, পুলিশের কাছে অনুমতি চাইল সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা

এদিন বিচারপতি আরএফ নরিম্যান ও বিচারপতি বিআর গাবাইয়ের ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে, “এই অতিমারী আবহে মানুষের সবচেয়ে মূল্যবান অধিকার হল বেঁচে থাকার অধিকার। কোনও চাপের কাছে সেই অধিকারকে খন্ডন করা সম্ভব নয়। রাজ্যে করোনা বিধিনিষেধে ছাড় দেওয়ার ফলে যদি কোনও অনভিপ্রেত ঘটনা ঘটে, তাহলে সাধারণ মানুষ আদালতের কাছে সেই ঘটনা তুলে ধরতেই পারেন। মানুষের বেঁচে থাকার অধিকার পাইয়ের দেওয়ার জন্য আদালতের পক্ষ থেকে তার যথাযথ ব্যবস্থা করা হবে।”

আরও পড়ুন: নিশীথ প্রামাণিকের নাগরিকত্ব ইস্যুতে সরব তৃণমূল, মুলতবি রাজ্যসভা

কেরলে ঈদ উপলক্ষে তিনদিন লকডাউন শিথিল করার বিরোধিতা করে আদালতে সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে পিটিশন দাখিল করেছিলেন পিকে নাম্বিয়ার। তাঁর আইনজীবী বিকাশ সিং বিচারপতিদের কাছে অবিলম্বে লকডাউন শিথিল করার সিদ্ধান্ত তুলে নেওয়ার নির্দেশ দিতে অনুরোধ করেন। কিন্তু বিচারপতি জানান, “এখন অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে। এই পর্যায়ে এসে লকডাউন শিথিল করার নির্দেশ অযৌক্তিক। ঘোড়া ইতিমধ্যেই ছুটতে শুরু করে দিয়েছে। আমরা এই পরিস্থিতিতে সেই বিজ্ঞপ্তি বাতিল করছি না।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *