ট্রেড বিল নিয়ে ‘বন্ধু’ নেপালকে বড়োসড়ো আর্থিক ক্ষতির মুখে দাঁড় করালো চিন

china and nepal

Mysepik Webdsk: কথায় আছে না সৎ সঙ্গে স্বর্গ বাস আর অসৎ সঙ্গে নরক বাস। নেপালের ক্ষেত্রে ঠিক এই ঘটনাই ঘটেছে। চিনকে বন্ধু ভেবে এবার সেই বন্ধুর কাছেই বড়োসড়ো ঝটকা খেল নেপাল। দু’বছর আগে নেপাল চিনের মধ্যে চুক্তি হওয়া ট্রেড বিল নিয়ে জিনপিং সরকারের কাছে প্রতারণার স্বীকার হল নেপাল। বিশেষজ্ঞদের মতে এর ফলে বড়োসড়ো আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে চলেছে নেপালের অর্থনীতি। আর চিন যে নিজের স্বার্থ ছাড়া কোনও কিছুই বোঝে না, সেটাও একবার প্রমান হয়ে গেল।

আরও পড়ুন: মোটেই ভাল নেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট, শরীরে কমছে অক্সিজেনের পরিমাণ

জানা গিয়েছে, দু’বছর আগে চিন এবং নেপালের মধ্যে একটি ট্রেড বিল চুক্তি হয়েছিল। ২০১৮ সালে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি চিন সফরে গেলে তখনিই দুই দেশের মধ্যে ট্রেড বিল চুক্তি সংগঠিত হয়েছিল। সেই বৈঠকে নেপালকে চিন ৮০৩০ রকমের জিনিসপত্রের আমদানীর ভরসা দিয়েছিল। যার মধ্যে ছিল কাপড়, বাসন, ফুটওয়ার, বিউটি প্রোডাক্টস, টুথব্রাশ, পশুর হাড়ের তৈরি বোতাম, মেডিকেল তেল এবং প্লাস্টিক। চুক্তি অনুযায়ী, নেপাল থেকে চিনে ৫১২ রকমের জিনিসের রপ্তানি করার কথা ছিল। তবে চিন থেকে নেপালে সেই জিনিসের যে তালিকা পাঠানো হয়েছে, তাতে দেখা গিয়েছে, ৫১২ রকমের জিনিসের পরিবর্তে সেখানে রয়েছে মাত্র ১৮৮ রকমের জিনিস।

আরও পড়ুন: ভারতকে চাপে রাখতে বাংলাদেশে রাস্তা গড়তে চাইছে চিন

বিশেষজ্ঞদের মতে, চিনের এই পদক্ষেপ আগামী দিনে আর্থিক দিক থেকে নেপালের পক্ষে যথেষ্ট বিপজ্জনক প্রমাণিত হতে চলেছে। ভারতের সঙ্গে শত্রুতা করার জন্য বর্তমানে চিনের হাত ধরেছে নেপাল। এদিকে নেপালের সংবাদপত্র ‘মাই রিপাবলিকান’ জানিয়েছে, নেপালের বিরুদ্ধে চিন দুতরফার এক আর্থিক রণনীতি প্রয়োগ করছে। এর ফলে নেপাল আর্থিকভাবে ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে পড়বে, যার ফলে চিনের ওপরে তাদের নির্ভরশীলতা বাড়বে এবং আগামী দিনে নেপালের প্রতিটি পদক্ষেপ নির্ভর করবে চিনের অঙ্গুলিহেলনে।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *