Latest News

Popular Posts

খেলা ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবছেন পঞ্জাব সরকারের উপর ক্ষুব্ধ দাবায় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মল্লিকা হান্ডা

খেলা ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবছেন পঞ্জাব সরকারের উপর ক্ষুব্ধ দাবায় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মল্লিকা হান্ডা

Mysepik Webdesk: দাবায় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মল্লিকা হান্ডা খেলা ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবছেন। তিনি পঞ্জাব সরকারের ওপর রেগে আগুন। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়োয় তিনি ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। জানিয়েছেন, পঞ্জাব সরকার তাঁকে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও আদতে তা পূরণ হয়নি। তাঁর ধারণা, তিনি মূক ও বধির বলে তাঁকে উপেক্ষা করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, ক্রীড়াবিদের সম্মান জানাতে আয়োজিত অনুষ্ঠানেও তাঁকে ডাকা হয় না।

আরও পড়ুন: জোহানেসবার্গে বেকায়দায় ভারত

পঞ্জাব সরকার অবশিষ্ট প্রতিবন্ধী খেলোয়াড়দের লক্ষ কোটি টাকা দিচ্ছে। কিন্তু কোনও এক অজানা কারণে বিশ্ব দরবারে জিতে দেশের নাম উজ্জ্বল করা মল্লিকা আজ উপেক্ষিত। গতবছর থেকে সরকারি চাকরির জন্য লড়ছেন মল্লিকা। কিন্তু সরকারের মন্ত্রী পর্যায়ের কর্মকর্তারা আশ্বাস দিলেও কাজের কাজ কিছু হয়নি। গত কয়েকদিন ধরে নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে সরকারের বিরুদ্ধে বেশ সরব মল্লিকা। টুইটে মল্লিকা লিখেছেন, তিনি শুনতে ও বলতে না পারলেও লিখতে পারেন। শুধুমাত্র লিখেই সরকারের হুঁশ ফেরাবেন। মল্লিকা টুইটারে যে ভিডিয়ো শেয়ার করছেন, সেখানে দেখা যাচ্ছে ইশারায় কথা বলার সময় আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ছেন তিনি।

আরও পড়ুন: ৩১ বছর পর ‘অধিনায়ক’ হিসাবে কোন নজির গড়লেন কে এল রাহুল?

প্রাপ্ত পদক এবং পুরস্কারগুলি এই জলন্ধর কন্যা দেখিয়ে বলেন, দেশের জন্য এই সব করেছেন। কেন্দ্রীয় সরকারও তাঁকে জাতীয় পুরস্কারে সম্মানিত করেছে। রাষ্ট্রপতির হাত থেকে সম্মাননা নিয়েছেন। অথচ পঞ্জাব সরকার তাঁর প্রতি সুবিচার করছে না। চাকরির জন্য প্রাণাতিপাত করলেও এখন পর্যন্ত সরকারের তরফে কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি বলে ক্ষুব্ধ তিনি। কংগ্রেসের শাসনামলে প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রী রানা গুরমিত সোধি একটি চিঠি লিখে মল্লিকাকে জানিয়েছিলেন, তাঁকে নগদ পুরস্কার দেওয়া হবে। চাকরিও দেওয়া হবে। যেখানে খেলোয়াড়দের সম্মান জানানোর অনুষ্ঠান হবে, সেখানে মল্লিকাকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। এর পর খেলোয়াড়দের সম্মান জানানোর অনুষ্ঠানও ঠিক হয়েছিল, আমন্ত্রণও এসেছিল। কিন্তু কোভিডের কারণে সেই অনুষ্ঠান বাতিল হয়ে যায়। কোভিড থেকে যখন কিছুটা স্বস্তি মিলল, আবার সম্মাননা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হল। দুর্ভাগ্যবশত এর জন্য আমন্ত্রণপত্রও আসেনি, সম্মান-সহ নগদ পুরস্কার কিংবা চাকরিও মেলেনি। মল্লিকা বলেন, সরকার তাঁকে ৫ বছর ধরে বোকা বানিয়েছে। সরকার তাঁকে নগদ পুরস্কার ও চাকরি দিতে না চাইলে কেন একসময় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল?

আরও পড়ুন: রঞ্জি শুরুর আগে বাংলার ৬ ক্রিকেটার করোনা আক্রান্ত

রানা গুরমিত সোধি পরবর্তীতে কংগ্রেস ছেড়ে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দেন। প্রতিশ্রুতি রক্ষা হয়নি। এখন চান্নি সরকার গঠনের পর মল্লিকা নবনিযুক্ত ক্রীড়ামন্ত্রী পরগত সিংয়ের সঙ্গেও যোগাযোগ করেন। পরগত সিংকে পুরো ঘটনা খুলে বলেন মল্লিকা। পরগত জানিয়েছিলেন, এই জাতীয় মূক-বধির প্রতিবন্ধী খেলোয়াড়দের চাকরি এবং নগদ পুরস্কার দেওয়ার কোনও ব্যবস্থা তাঁর কাছে নেই। তবে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করলে হয়তো সমাধানসূত্র বেরিয়ে আসবে। মল্লিকা বলেন, যখন অন্য খেলোয়াড়কে তাঁদের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে চাকরি দেওয়া হচ্ছে, তখন কেন তাঁর মতো দাবাড়ু বাদ থাকবেন?

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *