সাময়িকভাবে সাসপেন্ড কুস্তিগীর ভিনেশ ফোগাট, নোটিশ সোনম মালিককেও

Mysepik Webdesk: ভারতীয় রেসলিং ফেডারেশন টোকিওতে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে মহিলা কুস্তিগীর ভিনেশ ফোগাটকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে। একইসঙ্গে খারাপ ব্যবহারের জন্য সোনম মালিককে একটি নোটিশ দেওয়া হয়েছে। ফেডারেশন উভয় খেলোয়াড়কে ১৬ আগস্টের মধ্যে তাঁদের প্রতিক্রিয়া জানানোর কথা বলেছে। ভিনেশ আপাতত ফেডারেশনের কোনও ক্রীড়া কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। ভারতীয় রেসলিং ফেডারেশনের এক কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে বলেন, ভিনেশকে তিনটি কারণে নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: একশো বছর পূর্ণ প্রথম কলকাতা ডার্বির গোলের

প্রথমত, ভিনেশ টোকিওর স্পোর্টস ভিলেজে ভারতীয় খেলোয়াড়দের সঙ্গে থাকতে এবং প্রশিক্ষণ নিতে অস্বীকার করেছিলেন। ভিনেশের সঙ্গে ভারতীয় কুস্তিগীর সীমা বিসলা, অংশু মালিক এবং সোনম মালিকের স্পোর্টস ভিলেজে একটি রুমে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। তখন ভিনেশ এই ভারতীয় খেলোয়াড়দের সঙ্গে এক কক্ষে থাকতে রাজি হননি। ভিনেশ যুক্তি দেখান যে, এই সমস্ত কুস্তিগীর ভারত থেকে এসেছেন, তাই করোনা সংক্রমণের ভয় থাকবে। উল্লেখ্য, ভিনেশ টোকিও অলিম্পিকের আগে হাঙ্গেরিতে তাঁর ব্যক্তিগত কোচের তত্ত্বাবধানে ট্রেনিং নিচ্ছিলেন। তিনি হাঙ্গেরিয়ান দলের সঙ্গে সরাসরি টোকিও পৌঁছেছিলেন।

দ্বিতীয় কারণটি হল, লড়াইয়ের সময় ভিনেশ ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের অফিসিয়াল পার্টনার শিব নরেশের লোগো সহ পোশাক পরার পরিবর্তে অন্য একটি কোম্পানির লোগো পরে রিংয়ে প্রবেশ করেছিলেন। তৃতীয়ত, টোকিওতে ভিনেশ হাঙ্গেরিয়ান কুস্তিগীরদের সঙ্গে প্রশিক্ষণ নিচ্ছিলেন। একদিন যখন তাঁর ট্রেনিংয়ের সময়সূচি ভারতীয় মহিলা কুস্তিগীরদের সঙ্গে রাখা হয়েছিল, তখন তিনি প্রশিক্ষণই নেননি।

আরও পড়ুন: পিএসজির সঙ্গে প্রায় ২৫৭ কোটি টাকায় চুক্তিবদ্ধ লিওনেল মেসি!

টোকিওতে ফেভারিটদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন ভিনেশ ফোগাট। তাঁর কাছ থেকে পদক জয়ের প্রত্যাশা পর্যন্ত ছিল। তবে, কোয়ার্টার ফাইনালে বেলারুশের ভেনেসা কালাদজিনস্কায়ার কাছে পরাজিত হয়ে তিনি বিদায় নেন। ফেডারেশনের কর্মকর্তা জানান, ভিনেশের আচরণ সিনিয়র খেলোয়াড়ের মতো ছিল না। যদিও এখনও পর্যন্ত ভিনেশের তরফ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। একইসঙ্গে সোনম মালিক স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (সাই)-র একজন কর্মকর্তাকে ফোন করে ফেডারেশনের অফিস থেকে পাসপোর্ট নিয়ে যাওয়ার কথা বলেছিলেন। এই কাজটি সোনম মালিকের নিজের অথবা তাঁর পরিবারের কারোর করার কথা। তিনি তা না করে ফেডারেশনের এক কর্মকর্তাকে এই কাজটি করতে বলেছিলেন। এ বিষয়ে সোনম মালিকের কাছে কৈফিয়ৎ চাওয়া হয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *