জাতি বৈষম্যমূলক মন্তব্যের অভিযোগে গ্রেপ্তার হতে হল যুবরাজ সিংকে

Mysepik Webdesk: জাতি বৈষম্যমূলক মন্তব্যের অভিযোগে গ্রেপ্তার হতে হল ভারতীয় প্রাক্তন তারকা যুবরাজ সিংকে। যদিও অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে ছাড়া পেয়েছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় আট মাস আগে নাচের একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছিলেন ইউজবেন্দ্র চাহাল। এই পোস্ট নিয়ে ইনস্টাগ্রামে রোহিত শর্মার সঙ্গে কথোপকথনে বৈষম্যমূলক মন্তব্য করে বসেন যুবরাজ সিং। এই মন্তব্যের পরে হরিয়ানার বাসিন্দাদের একাংশ তাঁর ওপর রেগে আগুন ছিলেন। তখনই যুবরাজকে গ্রেফতার করবার দাবি ওঠে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। যদিও ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন যুবি।

আরও পড়ুন: জম্মু ও কাশ্মীরে শহিদ ৯ ভারতীয় সেনা, দেশের বিভিন্ন মহলে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ বাতিলের দাবি

যুবরাজ টুইট করে লিখেছেন যে, “কখনোই কোনও জাতি-ধর্ম-বর্ণ অথবা লিঙ্গের বৈষম্যের বিশ্বাস করিনি আমি। মানুষের জন্যই কাজ করেছি গোটা জীবনে। মানুষকে মর্যাদা দানে বিশ্বাসী আমি। মানুষ একে অপরকে নিঃস্বার্থভাবে সম্মান করুক, এমনটাই চেয়ে এসেছি। সতীর্থদের নিয়ে কথা বলার সময় আমি যে কথা বলেছিলাম, তার অন্যরকম অর্থ করা হয়েছে। এটা অনভিপ্রেত। একজন দায়িত্বশীল ভারতীয় নাগরিক হিসেবে যদি আমার মন্তব্য কারোর ভাবাবেগকে আঘাত করে, তার জন্য ক্ষমা চাইছি। ভারতকে ভালোবাসি আমি। ভারতবর্ষের সব সময় আমার অন্তরে থাকে।”

প্রায় আট মাস আগে আগে ঝাঁসি থানায় যুবরাজের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩, ১৫৩এ, ২৯৫, ৫০৫ ধারায় মামলা রুজু করা হয়। এই মামলা দায়ের করেন হরিয়ানার হিসারের এক আইনজীবী। তপশিলি জাতি ও উপজাতি আইনের ৩(১) (R) এবং ৩(১) (S) ঢাকা কেউ দায়ের হয় মামলা। সেই মামলাতেই ঘটনার প্রায় ৮ মাস পর গ্রেপ্তার হতে হল যুবরাজকে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

One comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *