জাকির হোসেনকে ক্যাবিনেট মন্ত্রী করা হোক, দাবি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর

Mysepik Webdesk: সোমবার সকালে বহরমপুর কংগ্রেস কার্যালয় সাংবাদিক বৈঠক করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী। ভোট গণনার ফলাফলের পর মুর্শিদাবাদে কংগ্রেসের অবস্থান সম্পর্কে তিটি জানান, বিধানসভা নির্বাচনে সামশেরগঞ্জ প্রার্থী দিতে চেয়েছিল কংগ্রেস কিন্তু, জোট থাকাকালীন হয়নি। তাঁর বক্তব্য, এখনও চারটি বিধানসভা কেন্দ্রে ভোট হবে। জোটে থাকা নিয়ে নিয়ে শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।

আরও পড়ুন: আর হলুদ-সবুজ নয়, শহরের রাস্তায় নামবে নীল-সাদা ই-অটো

এদিন ভবানীপুর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “মমতা ব্যানার্জি তিনবারের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি ভবানীপুর মানুষের কাছে ভোট দেওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন। কিন্তু, মোট ৫৩ শতাংশ ভোট পড়েছে। ৪৭ শতাংশ মানুষ ভোট দেয়নি। তার মানে এটাই প্রমাণিত হয় যে মমতা ব্যানার্জির প্রতি ভবানীপুরের মানুষের যে আবেগ ভালোবাসা ছিল, সেটা কম পড়েছে। অথচ, মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুরে তৃণমূলের প্রার্থী জাকির হোসেন বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছে। ফলে, এটা বলা যেতেই পারে যে মমতা ব্যানার্জির থেকে জাকির হোসেনের মার্জিন অনেকটাই বেশি। আবার এটাও বলা যায়, জঙ্গিপুর বিধানসভা কংগ্রেস কর্মীরাও জাকির হোসেন কে ভোট দিয়েছে কারণ, তাঁর শারীরিক অসুস্থতা।

আরও পড়ুন: বিপুল মার্জিনে জিতেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, শপথ গ্রহণ করবেন কবে?

অধীরবাবুর কথায়, জাকির হোসেন ওখানকার খুব ভালো একজন ছেলে। সেই দিকটি লক্ষ্য রেখেই মানুষ হয়তো তাঁকে প্রায় এক লাখ-এর কাছাকাছি ভোটে জয়লাভ করিয়েছে। মমতা ব্যানার্জিকে শুধু সম্বর্ধনা দিলে হবে না, মুর্শিদাবাদের ছেলে জঙ্গিপুরের বিধায়ক জাকির হোসেনকেও সম্বর্ধনা দেওয়া উচিত। কারণ, সে মমতা ব্যানার্জির থেকে বেশি ভোটে জয়লাভ করেছেন। তৃণমূলের নেতারাও বলতে পারবেন না যে কংগ্রেসের কর্মীরা জাকির হোসেনকে ভোট দেয়নি”। মুর্শিদাবাদের মানুষ হিসাবে জাকির হোসেনকে মন্ত্রিসভায় স্থান দেওয়া দরকার বলেই তিনি মনে করেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *